News Bangla

৫২ জন মারা গেছে নারায়ণগঞ্জে জুস কারখানার আগুনে

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের যে কারখানায় গতকাল আগুন লেগেছিল, সেখানে সর্বশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত অন্তত ৫২ জন মারা গেছে বলে ফায়ার সার্ভিস আজ জানিয়েছে।

ফায়ার সার্ভিসের উপ পরিচালক দেবাশিষ বর্ধন দুপুর সোয়া দুইটা নাগাদ ঘটনাস্থলে উপস্থিত সাংবাদিকদের জানান, “৪৯টি মরদেহ এখন পর্যন্ত উদ্ধার করা হয়েছে।” তিনি জানান, ঘটনাস্থলে এখনও উদ্ধারকাজ চলছে।

এছাড়া গতকাল রাতেই তিনজনের মৃত্যু নিশ্চিত করা হয়েছিল বলে জানান মি. বর্ধন।

ঐ ভবনের পঞ্চম ও ষষ্ঠ তালায় এখনও উদ্ধারকাজ চলছে বলে জানান তিনি।

তিনি জানান, মরদেহগুলো ভবনটির চতুর্থ তলা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। দুপুর পর্যন্ত আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা না যাওয়ায় পঞ্চম ও ষষ্ঠ তলায় উদ্ধারকাজ পরিচালনা করা সম্ভব হয়নি।

তিনি আরও বলেন, “চার তলার সিঁড়ির দরজা বন্ধ ছিল, এ কারণে সেখানে থাকা মানুষ বের হয়ে ছাদে উঠতে পারেনি। তারা ছাদে যেতে পারলে হয়তো তারা মারা যেতেন না।”

উদ্ধার করা মরদেহগুলো পুড়ে এতটাই বিকৃত হয়েছে যে সেগুলো শনাক্ত করা কঠিন হয়ে পড়েছে বলে জানিয়েছেন দেবাশিষ বর্ধন।

এই কর্মকতা জানান, বৃহস্পতিবার রাতে ভবনটির ছাদ থেকে ২৫ জনকে তারা উদ্ধার করেন যারা আগুন লাগার পর ছাদে উঠতে পেরেছিলেন।

“পঞ্চম ও ষষ্ঠ তলা পুরোপুরি সার্চ করে তারপর হতাহতের চূড়ান্ত সংখ্যা জানা সম্ভব হবে।”

ঘটনাস্থলে থাকা রূপগঞ্জ থানার একজন পুলিশ সদস্য বিবিসি বাংলাকে জানিয়েছেন যে ওই কারখানায় কাজ করতেন, এমন অনেকের স্বজনেরা ঘটনাস্থলে ভিড় করেছেন।

অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা তদন্তে নারায়নগঞ্জের জেলা প্রশাসন একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে।

রূপগঞ্জ উপজেলার কর্ণগোপ এলাকায় একটি ফুড অ্যান্ড বেভারেজ ফ্যাক্টরির ভবনে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার কিছুক্ষণ আগে আগুন লাগে।

আগুন লাগার পর সন্ধ্যা থেকে শুক্রবার ভোর পর্যন্ত আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। এর আগে বলা হয়েছিল যে আগুনের ঘটনার পর তিনজনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। সূত্র-বিবিসি।