News Bangla

হেফাজতের তাণ্ডবের সঙ্গে বিএনপি ছিল মনে হয়: কাদের

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

হেফাজতে ইসলামের তাণ্ডবের সঙ্গে বিএনপি প্রত্যক্ষভাবে জড়িত ছিল মনে হয় বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।মঙ্গলবার রাজশাহী সড়ক জোন, বিআরটিসি ও বিআরটিএ’র কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এমন মন্তব্য করেন।

সভায় ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি মহাসচিবের গত কয়েকদিনের কথাবার্তা শুনলে মনে হয়- হেফাজতে ইসলামের সাম্প্রতিক তাণ্ডবলীলার তারা শুধু পৃষ্ঠপোষকই নয়, এসব সহিংস ঘটনায় তারা জড়িত ছিল।

তিনি বলেন, কোনো দল বা আলেম ওলামা দেখে কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি। যারা এ তাণ্ডবলীলার সঙ্গে সরাসরি জড়িত, বাড়ি ঘরে হামলা ও আগুন দিয়েছে, ভিডিও দেখে তাদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। করোনার এ সময়ে রাজনৈতিক বিরূপ মন্তব্য করা সমীচীন নয় জানিয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, পারস্পরিক দোষারোপ কারোরই এ সময় করা উচিত নয়। কিন্তু নিত্যদিন বিএনপির মিথ্যাচার ও অন্ধ সমালোচনার জবাব দিতে হয়।

তিনি বলেন, জন্মলগ্ন থেকে যে দল অগণতান্ত্রিক পথরেখা ধরে হেঁটেছে, তারা আজ গণতন্ত্রের ফেরিওয়ালা সেজেছে, সবক দিচ্ছে দেশ ও জাতিকে। বিএনপির গণতন্ত্র হচ্ছে না ‘হ্যাঁ-না’ ভোট আর রাতের বেলায় কারফিউ।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপির গণতন্ত্র মানে ১৫ ফেব্রুয়ারির ভোটারবিহীন নির্বাচন, মাগুরা, ঢাকা-১০ আসনের উপনির্বাচন আর এক কোটি তেইশ লাখ ভুয়া ভোটারের প্রস্তুতি।

তিনি বলেন, গণতন্ত্রে বন্ধুর পথ ধরে হাঁটছে শেখ হাসিনা। বাধা-বিপত্তি অতিক্রম করে গণতন্ত্রকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপদানে অত্যন্ত আন্তরিক। কিন্তু বিএনপি এ পথে বড় বাধা। তাদের অসহযোগিতা এবং বাধার কারণেই গণতন্ত্রের মসৃণ যাত্রা বারবার হোঁচট  খেয়েছে।

সভায় সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, ঈদ আসলে আমরা ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তা মেরামত করতে থাকবো। বাকি সময় কি ক্ষতি হতেই থাকবে? ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তা সঙ্গে সঙ্গে মেরামত করতে হবে। এখানে ঈদ আর বর্ষার বিষয় নয়।

তিনি বলেন, ঈদ বা বর্ষা আসলে তাড়াহুড়ো করে খোয়া, বালু দিয়ে কোনোরকমে গর্ত ভরাট করার চেষ্টা করি। কিন্তু বাস্তবে গর্ত আরও বড় হয়ে যায়, রাস্তা আরও বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। কারণ বর্ষা চলাকালে রাস্তার দীর্ঘস্থায়ী কোনো মেরামত করা যায় না। সূত্র-দেশরূপান্তর।