News Bangla

সেপ্টেম্বর থেকে ছাত্র-শিক্ষক-অভিভাবকের বৃহত্তর আন্দোলন শুরু হবে

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারকে জবর দখলকারী সরকার হিসেবে অভিহিত করে নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেছেন, এই সরকার গরীবের শত্রু। যারা ছাত্র, শিক্ষক, অভিভাবক আছেন তাদের প্রত্যেকের কাছে বলি, ছাত্র-শিক্ষক-অভিভাবক ফোরামের সঙ্গে আরও ছাত্ররা মিশবেন। যদি অতি তাড়াতাড়ি জবাব না পান তাহলে সেপ্টেম্বর থেকে ছাত্র-শিক্ষক-অভিভাবকের বৃহত্তর আন্দোলন শুরু হবে।

শনিবার (২৮ আগস্ট) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ছাত্র-শিক্ষক-অভিভাবক ফোরাম আয়োজিত সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার দাবিতে এক মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন।

মান্না বলেন, এই যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার লড়াই, এটা শুধু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা নয়; গোটা ছাত্রদের মুক্তি পাবার লড়াই, শিক্ষাকে মুক্ত করার লড়াই। শিক্ষার যদি মুক্তি হয় তাহলে অশিক্ষা, কু-শিক্ষা, দুঃশাসন, ভোট চুরি, জোর করে ক্ষমতা দখল বন্ধ হয়ে যাবে। ওরা গদি ছাড়তে চায় না, ওদের ঠ্যাং ধরে টান দেব।

তিনি বলেন, টাকা পাচারকারীদের গ্রেফতার করা হচ্ছে না কেন? লুটেরা যারা, টাকা পাচারকারী যারা; তাদের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয় না। যারা ক্যাসিনো করে, মেয়ে মানুষের ব্যবসা করে; এমন কোনও ব্যবসা নেই যা তারা করে না। পরীমণির নাম কেন বলেন? পরীমণি কী ব্যবসা করেছে তা জানি না। বলেছে কী কী দোষ? তার বাসায় কারা যেত তাদের নামের লিস্ট দিয়েছে? নামের লিস্ট দেবে না। ওরা শুধু গরিব মানুষগুলোকে ধরবে। বড়লোকদের নয়।

মান্না বলেন, বেগম জিয়াকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়নি। সে ঘর থেকে বের হতে পারেন না। কথা বলতে পারেন না। অথচ যারা হাজার হাজার কোটি টাকা ব্যাংক থেকে লুট করে নিয়েছে, বিদেশে পাচার করে দিয়েছে; তাদের একজনকেও গ্রেফতার করা হয়নি।

তিনি আরও বলেন, সরকারকে বলতে হবে কবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলবে। বলতে হবে বিশ্ববিদ্যালয় খুলবে কবে, কবে হল খুলবে। কত সময়ের মধ্যে টিকা দেওয়া হবে, সেটাও বলতে হবে।