News Bangla

‘বীরাঙ্গনা’ খেতাব পাওয়ার যোগ্য মেয়েটি: তসলিমা

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
আজ দেখলাম ব্যাঙ্গালোরের ভিডিওটি যেখানে একটি মেয়েকে কয়েকটি পুরুষ নৃশংস নির্যাতন করছে। পুরুষের দলে একটি নারীও আছে, যে নারী পুরুষগুলোকে নারীনির্যাতনে, নারীধর্ষণে সাহায্য করছে। এটিই সমাজ আমাদের। পুরুষের কাজ পুরুষ করে। নারীও পুরুষের মতোই বর্বরতায় অংশ নেয়।
অনেকে বলে আমি নারীর নৃশংসতা কখনও দেখিনি, তাই নারীর প্রতি আমার ভালোবাসা উথলে ওঠে। আমি কৈশোর থেকে নারী্র ওপর নির্যাতন যেমন দেখেছি, নারীর নৃশংসতা, নিষ্ঠুরতা, বর্বরতা, স্বার্থপরতাও দেখেছি। আমার পরিবারেই দেখেছি। আমার স্ত্রৈণ দাদারা যাদের বিয়ে করে ঘরে এনেছিল, তাদের দ্বারা অত্যাচারিত কে হয়নি সংসারে! কিন্তু পরিবারের বাইরে বেরিয়ে পুরো জগত সংসারে দেখেছি নারী যত না অত্যাচার করে, তার চেয়ে বেশি অত্যাচারিত হয়।
ব্যাঙ্গালোরের ভিডিওটি ছড়িয়ে না গেলে আমাদের বোঝা হতো না নারী-পাচারের শিকারদের সঙ্গে কী ব্যবহার করে শিকারীরা। নির্যাতিতা মেয়েটি নারী-পাচারের অন্য এক শিকারকে পালাতে সাহায্য করেছিল, তাই তার ওপর এত রাগ ছিল শিকারীদের। শুনেছি এরা সবাই বাংলাদেশের। এই মেয়েটিকে বাংলাদেশে ‘জাতীয় সম্মান’ দেওয়া উচিত। ‘বীরাঙ্গনা’ খেতাব পাওয়ার যোগ্য মেয়েটি। ধর্ষক আর নির্যাতকদের হাত থেকে মুক্তির জন্য যে যুদ্ধ সে কম বড় মুক্তিযুদ্ধ নয়।