News Bangla

বিএনপি একটি বাক-বাকুম পার্টিতে পরিণত হয়েছে : নানক

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেছেন, বিএনপি একটি বাক-বাকুম পার্টিতে পরিণত হয়েছে।

রবিবার (১৮ জুলাই) সন্ধ্যায় ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয় সংগঠনটির ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা আয়োজিত বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার ‘কারা অভ্যন্তরীণ দিবস’ উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় তিনি এ সব কথা বলেন।

নানক বলেন, যখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ করোনার ভ্যাকসিন আসে তখন বিএনপি বলেছিল ভ্যাকসিন তারা দেবে না। ভ্যাকসিনের মধ্যেও তারা অপপ্রচার চালিয়ে ছিল। একদিকে তাদের নেত্রী দণ্ডিত বেগম খালেদা জিয়াও ভ্যাকসিন দেয়, অন্যদিকে তাদের নেতারা ভ্যাকসিন নিয়ে সমালোচনা করে। আসলে বিএনপির একটি বাক-বাকুম পার্টিতে পরিণত হয়েছে।

তিনি বলেন, যখন করোনার মধ্যে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা শেখ হাসিনার নির্দেশে অসহায় ও দুস্থ মানুষের সেবায় নিরলস কাজ করে যাচ্ছে তখন বিএনপির নেতাকর্মীরা একটি চাল দিয়েও কাউকে সহযোগিতা করেননি।

ওয়ান-ইলেভেনের স্মৃতিচারণ করে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, সেদিন বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনাকে গ্রেফতারের উদ্দেশ্য ছিল জনগণের কণ্ঠরোধ করে দেওয়া। জনগণের অধিকার হরণের একটি কূটনৈতিক প্রক্রিয়া।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর এই নেতা বলেন, সেসময় নেত্রী গ্রেফতার হওয়ার আগে আমাকে শেষ বার্তা দিয়েছিলেন। তা হলো-‘নানক আমি চলে যাচ্ছি। বিশ্বাসঘাতকতার কি দেখেছিলে? দেখতে পাবে আমি গ্রেফতার হবার পরে।’ সেদিন দলের ভেতরে অভ্যন্তরীণ রক্তক্ষরণ। সে সময়ে আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা করা হয়েছিল রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে। সেই বর্ধিত সভায় তারা তাদের মনের মত করে সিদ্ধান্ত দেবে। কিন্তু সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি কারণ জেলা থেকে আসা সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদকরা বলেছিলেন নো শেখ হাসিনা, নো ইলেকশন।

আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি সঞ্জিত চন্দ্র দাস, সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন। আরও উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য। সূত্র-বাংলা ট্রিবিউন।