News Bangla

নবম ও দশম শ্রেণীতে বিষয়ের বিভাজন থাকবে না

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

দেশের নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নে আগামী বছর থেকে পাইলট প্রকল্প শুরু হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। আর এ শিক্ষাক্রম পুরোপুরি শুরু হবে ২০২৩ সালে। জাতীয় শিক্ষাক্রম রূপরেখা উপস্থাপন শীর্ষক প্রেস কনফারেন্সে সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) এসব কথা বলছেন শিক্ষামন্ত্রী।

নতুন শিক্ষাক্রম অনুযায়ী নবম ও দশম শ্রেণীতে বিষয়ের বিভাজন থাকবে না বলেও জানিয়েছেন তিনি। আগে নবম ও দশম শ্রেণীর পাঠ্যক্রম মিলিয়ে পাবলিক পরীক্ষা হলেও, নতুন পাঠ্যক্রমে শুধুমাত্র দশম শ্রেণিতে পাবলিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। নবম ও দশম শ্রেণীর বইও হবে আলাদা।

উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা কাঠামোতেও আসছে পরিবর্তন। একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষার ফল মিলিয়ে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার ফল নির্ধারণ করা হবে বলে জানান মন্ত্রী। এখন থেকে ১৬ বছর বয়স পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের সব বিষয়ই পড়তে হবে।

শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, এই বছর থেকেই নতুন শিক্ষাক্রমের পাইলটিং শুরু হওয়ার কথা ছিল, তবে করোনার কারণে তা পিছিয়ে যায়। আগামী বছর পাইলটিংয়ের পর ২০২৩ সাল থেকে নতুন শিক্ষাক্রম পুরোপুরি চালু হবে এবং ২০২৫ সালের মধ্যে সব শ্রেণী এ নতুন শিক্ষাক্রমের আওতায় আসবে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, জাতীয় শিক্ষাক্রমের রূপরেখা কিছুটা বিলম্বে হলেও চূড়ান্ত হয়েছে। এবার পুরো শিক্ষাক্রম হবে শিক্ষাকেন্দ্রীক।

শিক্ষার্থীদের ওপর বোঝা ও চাপ কমানো, গভীর শিক্ষণ, মুখস্থ নির্ভরতা কমানো, একটিভিটি বেইসড লার্নিংকে কেন্দ্র করে হবে নতুন শিক্ষাক্রম। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, জাতীয় শিক্ষাক্রমের রূপরেখা কিছুটা বিলম্বে হলেও চূড়ান্ত হয়েছে। এবার পুরো শিক্ষাক্রম হবে শিক্ষাকেন্দ্রীক। আর শিক্ষার্থীদের মূল্যায়নের জন্য ধারাবাহিক ও সামষ্টিক মূল্যায়ন দুটিই থাকবে।

শ্রেণিকক্ষেই যেনো পাঠদান শেষ না হয়ে যায় সেদিকে খেয়াল রাখা হবে, বলেন শিক্ষামন্ত্রী। তিনি জানান, শিক্ষা শুধু সনদের জন্য হবে না, হবে জীবনমুখী। শিক্ষাক্রমের ভিত্তি হবে স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা নির্ভর। সূত্র-একাত্তর টিভি।